বিসিবির সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় ক্রিকেটাররা

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের মূল গেইটে (২ নম্বর গেইট) আসতেই নিরাপত্তা কর্মীরা এগিয়ে আসলেন হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে। আগন্তুক সবাইকে এভাবেই অভ্যর্থনা জানানো হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের প্রকোপের দিনে এই দৃশ্য অস্বাভাবিক নয়। যদিও মহামারী রূপ ধারণা করা এই ভাইরাস কার্যত শ্মশান নীরবতা ঢেকে দিয়েছে মিরপুর স্টেডিয়ামকে। দেশব্যাপী সতর্কতার অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে স্থগিত করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ।

ম্যাচ নেই, অনুশীলনও বন্ধ। স্টেডিয়ামে ক্রিকেটারদের পদচারণা নেই বললেই চলে। গতকাল সকালে এসে বিসিবি একাডেমিতে আড্ডা দিলেন মুস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ মিঠুন। পরে তাইজুলকে নিয়ে রানিং করে ফিরে গেলেন মিঠুন। আবু জায়েদ রাহী, এবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদরাও ঢুঁ মারেন মাঠে।

ক্রিকেটারদের মুখে ঘুরে-ফিরে একই কথা। লিগ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেখার অপেক্ষায় তারা। লিগ বন্ধ হয়ে গেলে বেশিরভাগই ফিরে যাবেন বাড়িতে। গতকাল সাংবাদিক দেখতেই ক্রিকেটাররা বলছিলেন, ‘ভাই, কি অবস্থা জানেন কিছু? আবার কী শুরু হবে না-কি বন্ধ করে দিবে লম্বা সময়ের জন্য। বন্ধ হলে এক কথা, আমরা বাড়ি চলে যাব। এখন তো এক রাউন্ড স্থগিত হয়েছে। একটা সিদ্ধান্ত পেলে ভালো হতো।’

করোনার কারণে প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড স্থগিত করা হয়েছিল। সূচি অনুযায়ী ২১-২২ মার্চ খেলা হওয়ার কথা। তবে এই সূচিতে খেলা শুরু হওয়ার সম্ভাবনা কমে গেছে। গতকাল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক জনের মৃত্যু, আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার খবর নেতিবাচক হিসেবেই ধরা দিয়েছে। যদিও গতকাল দুপুর অব্দি ক্রিকেটাররা, ক্লাবগুলো খেলা চালিয়ে যেতে রাজি ছিল।

আবাহনীর কোচ ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন গত মঙ্গলবার বলেছিলেন, ‘আমরা খেলতে চাই। ছেলেদের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। সবাই খেলতে চায়।’ অন্যান্য ক্লাবগুলোও লিগ শুরুর পক্ষে ছিল। ক্রিকেটারদের ধরে রেখেছে তারা। তাতে ক্রমাগত খরচ গুণতে হচ্ছে ক্লাবগুলোকে। যা তাদের জন্য চিন্তার কারণ বটে।

প্রিমিয়ার লিগ বিষয়ে আজই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারে বিসিবি। গতকাল জানা গেছে, আজ মিরপুর স্টেডিয়ামে আসবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনিই ঘোষণা করবেন লিগের ভবিষ্যত্। গতকাল সিসিডিএমের (ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সমন্বয়ক আমিন খান বলেছেন, ‘কাল (আজ) একটা সিদ্ধান্ত আপনারা জানতে পারবেন। বোর্ড সভাপতি আপনাদের জানাবেন।’

আজ পর্যন্ত বিসিবি একাডেমিতে অনুশীলনও বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দিয়ে রেখেছে বিসিবি। গতকাল প্রাইম দোলেশ্বরের হেড কোচ মিজানুর রহমান বাবুল বলেন, কাল (আজ) পর্যন্ত অনুশীলনই বন্ধ। দেখা যাক কী হয়। এখনো কোনো সিদ্ধান্ত জানি না।

এদিকে খেলা না থাকার দিনগুলোতে নিজেকে ফিট রাখতে কাজ করছেন ক্রিকেটাররা। গতকাল যেমন মিঠুন-তাইজুলরা রানিং করলেন। লিগ বন্ধ হয়ে গেলে কী করবেন প্রশ্নে গতকাল মুস্তাফিজ বলছিলেন, ‘রানিং করা উচিত। কিছু করতে গেলে তো চার-পাঁচজন লাগবে। বোলিং করতে গেলেও তাও তো কেউ লাগবে। চেষ্টা করব রানিং, ফিটনেসের কিছু ব্যাপার আছে এইগুলো করার।’

খবরটি শেয়ার করুন...
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Print this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি